ফ্রিল্যান্সিং এ ফটোশপের যে কাজগুলো বেশি চাহিদার

ফ্রিল্যান্সিং এ ফটোশপের যে কাজগুলো বেশি চাহিদার

অনেকেই আমাকে প্রশ্ন করেন যে, এডোবি ফটোশপ দিয়ে কি কি কাজ করা যায় এবং এডোবি ফটোশপের কোন কাজগুলো সহজ। আজকের লেখাটি তাদের জন্য যারা ফটো এডিটিং করে ফ্রিল্যান্সিং বা চাকুরি করতে চান। আজ আমি আলোচনা করব এডোবি ফটোশপের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং চাহিদা সম্পূর্ন কিছু কাজ নিয়ে।

এডোবি ফটোশপ দিয়ে অনেক ধরনের কাজ করা যায়, অনেক গুলো কাজের মধ্যে কিছু কাজ রয়েছে যেগুলো ফ্রিল্যান্সিং এবং চাকুরি ক্ষেত্রে খুবই জনপ্রিয় এবং চাহিদা সম্পূর্ন। এই কাজগুলো আবার তুলনামূলক সহজ। যে কেউ ১-২ মাস শিখলে বা চর্চা করলে নিজেকে দক্ষ করতে পারবে। তাহলে দেখি ফ্রিল্যান্সিং এ ফটোশপের যে কাজগুলো বেশি চাহিদার।

১। ক্লিপিং পাথ

ফটোশপের সর্বপ্রথম এবং সবচেয়ে চাহিদা সম্পূর্ন কাজ হচ্ছে ক্লিপিং পাথ।  ক্লিপিং পাথ হচ্ছে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে বা কোন ছবি এডিট করতে মূল বস্তুকে সিলেক্ট করার প্রয়োজন হয় আর এই সিলেক্ট করাকে বলে ক্লিপিং পাথ। ক্লিপিং পাথ ফটোশপের কমন একটা কাজ। আপনি ফটোশপের যে কাজই করতে জাননা কেনো ক্লিপিং পাথের প্রয়োজন হবেই। তাই ক্লিপিং পাথ ফটোশপের সবচেয়ে সহজ এবং জনপ্রিয় কাজ। এই ক্লিপিং পাথ আবার ৪ (চার) প্রকার।

(ক) সিম্পল ক্লিপিং পাথ

(খ) কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ

(গ) কমপ্লেস্ক ক্লিপিং পাথ

(ঘ) মাল্টি ক্লিপিং পাথ

(ক) সিম্পল ক্লিপিং পাথ

সিম্পল ক্লিপিং পাথ হচ্ছে, যে ছবিকে পাথ করে মূল বস্তুকে সিলেক্ট করা সহজ তাকে সিম্পল ক্লিপিং পাথ বলে। সহজ ভাষায় বলা যায় যে ছবিকে পাথ করে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমোভ করা সহজ তাকে সিম্পল ক্লিপিং পাথ বলে। তবে ক্লিপিং পাথ কাজের মধ্যে সিম্পল ক্লিপিং পাথ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন কারন যে যতো সিম্পল ক্লিপিং পাথ ভালো পারবে সে ফটোশপের সকল ক্লিপিং পাথ করতে পারবে। তাই বলা যায় সিম্পল ক্লিপিং পাথ হচ্ছে সকল ক্লিপিং পাথ কাজের রাজা।

simple-clipping-path

 

(খ) কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ

কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ হচ্ছে, যে ছবিতে ক্লিপিং পাথ করা তুলনা মূলক একটু কঠিন তাকে কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ বলে। অন্যভাবে বললে যে ছবিতে ক্লিপিং পাথ করা সিম্পল ক্লিপিং পাথের চেয়ে একটু কঠিন তাকে কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ বলে। এই কমপাউন্ড ক্লিপিং পাথ কাজের রেট সিম্পল ক্লিপিং পাথ কাজের চেয়ে একটু বেশি হয়।

compound-clipping-path

(গ) কমপ্লেস্ক ক্লিপিং পাথ

কমপ্লেস্ক ক্লিপিং পাথ হচ্ছে সকল ক্লিপিং পাথ কাজের মধ্যে সবচেয়ে কঠিন এবং সবচেয়ে বেশি রেটের কাজ। যে যতো বেশি কমপ্লেস্ক ক্লিপিং পাথ করতে পারবে সে ততো বেশি টাকা আয় করতে পারবে। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে সবচেয়ে চাহিদা সম্পূর্ন কাজগুলোর একটি হচ্ছে কমপ্লেস্ক ক্লিপিং পাথ। এই কাজটি যে ভালো করে শিখতে পারবে সে ফ্রিল্যান্সিং এবং চাকুরিতে ও ভালো করতে পারবে।

complex-clipping-path

(ঘ) মাল্টি ক্লিপিং পাথ

ক্লিপিং পাথ কাজের মধ্যে সর্বশেষ কাজটি হচ্ছে মাল্টি ক্লিপিং পাথ। মাল্টি ক্লিপিং পাথ কথাটির মধ্যেই বোঝা যাচ্ছে কাজটি কি, যে ছবিতে একের অধিক ক্লিপিং পাথ করার প্রয়োজন হয় তাকে মাল্টি ক্লিপিং পাথ বলে।

multi-path

 

২। ফটো রিটাচিং

ফটোশপের অনেকগুলো জনপ্রিয় কাজের মধ্যে ফটো রিটাচিং জনপ্রিয় একটি কাজ। ফটো রিটাচিং হচ্ছে কোন ছবিকে সুন্দর ও আকর্ষনীয় করা। যখন কোন ছবি ক্যামেরা দিয়ে তোলা হয়, তখন ছবিটির কালার, কনট্রাষ্ট, উজ্জলতা এবং ছবির সাইজ ছোট বড় এই সকল কাজ করার প্রয়োজন হয় আর এগুলো করে ছবিকে সুন্দর করাকে বলা হয় ফটো রিটাচিং। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে ফটো রিটাচিং এর বেশ চাহিদা রয়েছে এছাড়াও বিভিন্ন মিডিয়া হাউজ গুলোতে চাকুরির সুযোগ রয়েছে। তাই যারা ফ্রিল্যান্সিং বা চাকুরি করতে চান তারা ফটো রিটাচিং শিখতে পারেন।

photo-retouching

 

৩। ফটো রিস্টোরেশন

ফটোশপের অনেক গুলো জনপ্রিয় কাজের মধ্যে ফটো রিস্টোরেশন ও একটি জনপ্রিয় কাজ। ফটো রিস্টোরেশন করতে গেলে আপনাকে অবশ্যই ফটো রিটাচিং জানতে হবে। ফটো রিস্টোরেশন হচ্ছে কোন নষ্ট বা পুরানো ছবিকে নতুনের মতো করা বা সুন্দর করা। ধরুন একটা ছবি ছিড়ে গেছে, যেটি আপনি ঠিক করতে চান তাহলে আপনাকে ফটো রিস্টোরেশন করতে হবে। আবার ধরুন একটি ছবি সাদা কালো যা আপনি রঙ্গিন করতে চান তাহলে আপনাকে ফটো রিস্টোরেশন করতে হবে। এছাড়াও আরও অনেক কাজ আছে যা ফটো রিস্টোরেশন এর অন্তর্ভক্ত। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং সেক্টর সহ চাকুরি ক্ষেত্রে ফটো রিস্টোরেশনের বেশ চাহিদা রয়েছে। তাই যারা ফ্রিল্যান্সিং বা চাকুরি করতে চান তারা ফটো রিস্টোরেশন শিখতে পারেন।

photo-restoration

 

৪। ছবিতে শ্যাডো তৈরি

ছবিতে শ্যাডো বা ছায়া দেওয়া ফটোশপের একটি জনপ্রিয় কাজ। এই কাজটি বেশি প্রয়োজন হয় ই-কমার্স ব্যবসায়। পন্যের ছবিকে সুন্দর এবং আকর্ষনীয় করতে ছবিতে শ্যাডো বা ছায়া তৈরির প্রয়োজন হয়। তবে আপনি যদি কোন ছবিতে শ্যাডো বা ছায়া দিতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই ক্লিপিং পাথ জানতে হবে। তাই যারা ফ্রিল্যান্সিং সেক্টর সহ চাকুরি ক্ষেত্রে ক্যারিয়ার গড়তে চান তারা ছবিতে শ্যাডো তৈরি কাজটা শিখতে পারেন।

shadow-creation

 

উপরের কাজগুলো ছাড়াও ফটোশপের আরও অনেক কাজ রয়েছে তবে আমি শুধু জনপ্রিয় কিছু কাজের কথা আলোচনা করেছি। আপনি যদি ফটোশপ নিয়ে ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে ফটোশপের সকল কাজ ভালো করে শিখতে হবে। আপনি যতো বেশি দক্ষ হবেন এবং আপনি ততো বেশি টাকা আয় করতে পারবেন।

লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিবেন।

ফ্রিল্যান্সিং এ ফটোশপের যে কাজগুলো বেশি চাহিদার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to top